দেশের সব জনগণের মতো বাংলাদেশ সেনাবাহিনীও অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যাকাণ্ডের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চায় বলে জানিয়েছেন সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ।

বুধবার আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক বিবৃতিতে জানানো হয়, সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ চট্টগ্রামে এ কথা বলেছেন।

সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ বলেন, ‘প্রথমত আমি বলব, এটা একটা অত্যন্ত নৃশংস, জঘন্যতম হত্যা ঘটনা ঘটেছে। এটার তদন্ত হচ্ছে। আমি সেনাপ্রধান হিসাবে আশা করতে চাই যে, তদন্তটা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে এবং যারা প্রকৃত ক্রিমিনাল, তাদের উপযুক্ত এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হবে, যাতে ভবিষ্যতে এই ধরনের কোনো ঘটনা সেনাবাহিনীর সার্ভিং অথবা রিটায়ার্ড কারও সাথে না ঘটে।’

গত ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজারের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান নিহত হন। এ সময় সিনহার সহকর্মী সিফাতকে আটক করে পুলিশ। পরে নীলিমা রিসোর্ট থেকে তাদের আরেক সহকর্মী শিপ্রা দেবনাথকে আটক করা হয়। পুলিশের দায়ের করা মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়। বর্তমানে তারা জামিনে আছেন।

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা নিহত হওয়ার ঘটনায় তার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। টেকনাফ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নকে (র‌্যাব) মামলাটির তদন্ত ভার দিয়েছেন।