শরীয়তপুর-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের সাবেক ডেপুটি স্পিকার কর্নেল (অব.) শওকত আলী আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।

এর আগে গত ৫ নভেম্বর থেকে সিএমএইচ হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন শওকত আলী। তিনি কিডনি, ডায়াবেটিস, নিউমোনিয়া ও উচ্চ রক্তচাপসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছিলেন। তার নাতি উদয় শওকত আলী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্ত্রী মাজেদা শওকত আলী, দুই ছেলে ফিরোজ শওকত আলী, খালেদ শওকত আলী ও এক মেয়ে মেরিনা শওকতসহ নাতি-নাতনি ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন সাবেক এই ডেপুটি স্পিকার।

শরীয়তপুরের নড়িয়া পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের লুংসিং গ্রামের সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবার মুন্সী বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন শওকত আলী । তিনি নড়িয়া পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ নড়িয়া গ্রামে বাস করতেন। শরীয়তপুর-২ আসন থেকে ছয়বার জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি।

পাকিস্তান আমলে ১৯৬৯ সালে বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে যে আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা করা হয়েছিল, তাতে শওকত আলীকেও আসামি করা হয়। তিনি মুক্তি সংহতি পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এবং ৭১ ফাউন্ডেশনের প্রধান উপদেষ্টা।