সোনিয়া আক্তার (২৬) ছদ্মনাম। অসচ্ছল পরিবারে জন্ম নেয়ায় পেশায় ছিলেন একজন গার্মেন্টস কর্মী। সংসারে অভাব থাকলেও জীবন ছিল সুন্দর। কিন্তু উচ্চাভিলাষী জীবনের স্বপ্ন কেড়ে নিয়েছে সব। 

যেভাবে মাদকের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে সোনিয়া:
হঠাৎ পরিচয় হয় একজন বড় আপুর সঙ্গে। কিন্তু জানা ছিলো না কী করেন সেই আপু। প্রতিদিন অনেক টাকা কামাতে পারবে বলে জানান তাকে। বিলাসী চলাফেরা দেখে লোভে পড়ে ছেড়ে দেন গার্মেন্টসের চাকরি। এরপর থেকেই শুরু অন্য জীবনে। ধীরে ধীরে জড়িয়ে পড়েন মাদকের সঙ্গে। এক সময় হয়ে যান দেহ ব্যবসায়ী।

সোনিয়া ডেইলি বাংলাদেশকে জানান, আমার প্রতিদিন ৫-১০টি ইয়াবা সেবন করতে হয়। না করলে মাথা ঠিক থাকে না। টাকা মেনেজ করতেই জড়িয়ে পড়ি দেহ ব্যবসার সঙ্গে।

আগের জীবনে ফিরতে চান কি না জানতে চাইলে সোনিয়া বলেন, সুযোগ নেই। আর ফিরেই কি করব বলেন? গরীব পরিবারে জন্ম, ঘরে বৃদ্ধ বাবা-মা ও ছোট ভাই-বোন সবাইকে আমার দেখতে হয়। ইচ্ছে থাকলেও বাধ্য হয়েই ফিরতে পারছি না।