‘কিল নরেন্দ্র মোদি’। মানে- ‘মোদিকে খুন করো’। তিন শব্দের এমন একটি হুমকি-ইমেইল পেয়েছে ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা এনআইএ। এর পর তৃতীয় মাত্রার সতর্কতা জারি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির গণমাধ্যম টাইমস নাও। খবরে বলা হয়েছে, এনআইএর সন্দেহ, এই হুমকির পেছনে পাকিস্তান সমর্থিত চক্রান্তকারীরা রয়েছেন।

টাইমস নাওয়ের সাংবাদিক নিকুঞ্জ গর্গের রিপোর্ট অনুযায়ী কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে একটি চিঠিতে এনআইএ জানিয়েছে, ‘একটি ইমেইল আইডি থেকে এনআইএ কিছু ইমেইল পেয়েছে, যার মাধ্যমে বিশিষ্ট ব্যক্তি এবং সরকারি এজেন্সিকে হুমকি দেওয়া হয়েছে।’

৮ অগস্ট লেখা চিঠিটি প্রকাশ্যে আসার পরই তৎপর হয়েছে দেশের প্রত্যেকটি নিরাপত্তা এজেন্সি। এর ফলে রাতারাতি বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা। চিঠিটি এসেছে, ‘লালবাণী’ নামের একটি ইমেইল আইডি থেকে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, এটি ভারতের বাইরে থেকে পাঠানো হয়েছে। এনআইএর থেকে এই চিঠির কথা জানতে পেরেই স্পেশাল প্রোটেকশন গ্রুপের সঙ্গে আলোচনায় বসেছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। মোদির নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছেন স্পেশাল প্রোটেকশন গ্রুপের কমান্ডোরা। বৃহস্পতিবার টুইটারের তরফে জানানো হয়েছিল- ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত নীড়পাতা হ্যাক হয়েছে। হ্যাক করার পর সেখান থেকে একাধিক টুইট করে ফলোয়ারদের ক্রিপ্টোকারেন্সির মাধ্যমে একটি রিলিফ ফান্ডে অর্থ সাহায্যের অনুরোধ করা হয়।

টুইটার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘আমরা এই বিষয়ে তদন্ত শুরু করে দিয়েছি। এই মুহূর্তে আমরা জানি না আর কার কার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে।’