উখিয়া উপজেলার রোহিঙ্গা অধ্যুষিত ইউনিয়ন পালংখালীর তেলখোলা-মোছারখোলা সড়কের নির্মাণ কাজে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার কাঁদা মাটির উপর দিয়ে চালিয়ে যাচ্ছে কার্পেটিং। অজ পাড়াগাঁয়ে ইঞ্জিনিয়ার বা সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের নজরদারির না থাকার সুযোগ কাজে লাগাচ্ছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ইউনুস এন্টারপ্রাইজ । এ নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভ বিরাজ করছে।

জানা যায়, বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে এ সড়কের কাজটি বাস্তবায়ন করছে এলজিইডি। অথচ এলজিইডি অফিসের কর্মকর্তা বা সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কেউ সড়কের তদারকিতে থাকার কথা থাকলেও বাস্তবতা ভিন্ন। স্থানীয় জনগণের অভিযোগ কার্পেটিং বা রাস্তার কাজ করার সময় এলজিইডি অফিসের কোনো কর্মকর্তাকে দেখা যায় না। এই না থাকার সুযোগকে কাজে লাগাচ্ছেন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ইউনুস এন্টারপ্রাইজ। দীর্ঘদিন ধরে সড়ক নির্মাণে নির্মাণে অনিয়ম ও সর্বশেষ ময়লা র ওপর কার্পেটিং করেও পার পেয়ে যাচ্ছে ঠিকাদার।


এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম,গফুর উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে আমার ইউনিয়নে এই রাস্তাটি অতি গুরুত্বপূর্ণ। তাই রাস্তার কাজে কোনো অনিয়ম হলে আমি কাজ বন্ধ করে দেব। ‌
এ ব্যাপারে বক্তব্য জানতে উখিয়া উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার রবিউল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এরকম অভিযোগ আমি এখনো পায়নি। আমি ওখানে যাই নাই। যাওয়ার পর দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।