অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলায় কারাবন্দি কক্সবাজারের টেকনাফ থানা থেকে সাময়িক বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায়ও গ্রেপ্তার দেখানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার দুপুর দেড়টায় এ আদেশ দেন চট্টগ্রাম মহানগর সিনিয়র ¯েপশাল দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালত। এর আগে চট্টগ্রাম কারাগার থেকে প্রদীপ কুমার দাশকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তায় আদালতে হাজির করা হয়। এই মামলায় তার স্ত্রী চুমকিও আসামি। কিন্তু তিনি পলাতক রয়েছেন।

আদালত সূত্র জানায়, সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকির কারণের বিরুদ্ধে দুদকে দাখিলকৃত স¤পদ বিবরণীতে ১৩ লাখ ১৩ হাজার ১৭৫ টাকার স¤পদ অর্জনের তথ্য গোপন এবং ঘুষ ও দুর্নীতির মাধ্যমে ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকার স¤পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়েছে।

আদালতে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে এরেষ্ট দেখানোর আবেদনের শুনানি ছিলো। আদালত এই আবেদন আমলে নিয়েছেন। পরবর্তী শুনানির তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ২০শে সেপ্টেম্বর।

এর আগে জ্ঞাত আয় বহির্ভুত সম্পদ অর্জন ও সম্পদের তথ্য গোপনের দায়ে গত ২৩শে আগস্ট ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকির বিরুদ্ধে দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এর সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দীন বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

সেই মামলায় ২৭শে আগস্ট মহানগর সিনিয়র ¯েপশাল দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালতে প্রদীপ কুমার দাশকে গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন জমা দেয়া হয়। আদালত আজ ১৪ই সেপ্টেম্বর আদেশের শুনানির জন্য সময় নির্ধারণ করেন।

এদিকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. কামাল উদ্দিন বলেন, দুদকের মামলায় সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে আদালতে হাজির করার জন্য শনিবার দুপুরে কক্সবাজার কারাগার থেকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয়। সেখানে সাধারণ হাজতির মতোই সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন তিনি। তাকে ডিভিশন দেয়া হয়নি। তবে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় তাকে কারাগারে রাখা হয়। সার্বিক নিরাপত্তায় তাকে সোমবার আদালতে হাজির করা হয়।