সাতক্ষীরার তালায় ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে বাবা লুৎফর নিকারীকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকায় আওয়ামী লীগ নেতা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সরদার মশিয়ার রহমানকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার রাত ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত লুৎফর নিকারী (৬৫) তালা সদরের জেয়ালা নিকারীপাড়ার বাসিন্দা। আটক মশিয়ার রহমান সরদার তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠণিক সম্পাদক ও তালা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান।

নিহতের ভাতিজা জেয়ালা নলতা গ্রামের রুহুল আমিন নিকারী জানান, নলবুনিয়া বিলে সরকারি খালে চাচাতো ভাই সেলিম নিকারী মাছ ধরছিল। ওই খালের সঙ্গে ভাইস চেয়ারম্যান সরদার মশিয়ার রহমানের মাছের ঘেরের বেড়ি। এ কারণে খাল থেকে মশিয়ারের সহযোগী রনি সেলিমকে আটকে রাখে।

এরপর সরদার মশিয়ার ঘটনাস্থলে পৌঁছে বারুইহাটি গ্রামের রনি, ওই গ্রামের মোসলেম শেখের ছেলে তুহিন শেখসহ তিনজন একত্রে তাকে মারধর করে।

পরে মারধরের ঘটনা পেয়ে সেলিম নিকারীর বাবা লুৎফর নিকারী ঘটনাস্থলে দৌঁড়ে যায়। সেখানে যাওয়া মাত্রই সরদার মশিয়ার, তুহিন ও রনি একত্রে তাকেও মারপিট করে। পরে গ্রামবাসী গিয়ে লুৎফর রহমানকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। এ সময় সেলিমকেও তার পাশে অচেতন অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়।

এ ঘটনায় রাতেই পুলিশের জরুরি সেবা সার্ভিস ৯৯৯ নম্বরে ফোন দেয় স্থানীয়রা। তারপর রাতেই অভিযান চালিয়ে সরদার মশিয়ারকে আটক করে পুলিশ। সেলিম নিকারী বর্তমানে তালা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

এদিকে, এ হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি করে তালা উপশহরে মরদেহ নিয়ে মিছিল করে আজ সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তালা থানা ঘেরাও করে গ্রামবাসী। এ সময় হাজার হাজার গ্রামবাসী খুনীদের ফাঁসি চাই স্লোগান দিতে থাকে।

ঘ(টনার সত্যতা নিশ্চিত করে তালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদী রাসেল জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। পরবর্তী সময়ে অভিযোগের পর এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।