বান্দরবানে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি)’র সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।  আজ সকালে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তার আগে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ইউনিয়নের বাইশফাঁড়ি সীমান্তের ৩৬/২ এস নম্বর পিলারের কাছে ‘বন্দুকযুদ্ধ’র এ ঘটনা ঘটে। নিহত  মো. আবদুর রহিম (২৫) কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১, ব্লক-এ/৭, এর ওয়াদুল হকের ছেলে ।
বিজিবি জানিয়েছে, এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় দোনলা বন্দুক, চার রাউন্ড কার্তুজ ও ৫০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।  কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমদ জানান, রাত সাড়ে ৩টার দিকে কয়েক জনকে মিয়ানমার থেকে আসতে দেখে বিজিবি তাদের চ্যালেঞ্জ করে। এ সময় তারা টহল দলকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি শুরু করে। বিজিবি সদস্যরা আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি করলে তারা পাহাড়ি জঙ্গলের মধ্য দিয়ে মিয়ানমারের দিকে পালিয়ে যায়।
পরে টহল দল ঘটনাস্থল থেকে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে দেশি তৈরি দোনলা বন্দুক ও বিপুল পরিমাণ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

উদ্ধার করা ইয়াবার মূল্য প্রায় এক কোটি টাকা।