কক্সবাজারের উখিয়ার আয়ুব সহযোগী নিয়ে সাড়ে ১৩ হাজার পিস ইয়াবা সহ চট্টগ্রামের চন্দনাইশ থানার দোহাজারী পৌরসভা এলাকায় র‍্যাব -৭ এর হাতে আটক হয়েছে। এসময় মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি মাইক্রোবাস জব্দ করা হয়েছে।
রবিবার (১১ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৫ টার দিকে দোহাজারী বাজারের সামনে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটকরা হলেন- কক্সবাজারের টেকনাফের সাবরাং ইউপির মৃত ফজল আহমদের ছেলে মো. আলম (৪৩) ও উখিয়া থানার রাজাপালং ইউপির নূর মোহাম্মদের ছেলে মো. আইয়ুব (১৯)। র‌্যাব-৭ এর সহকারী পুলিশ সুপার (মিডিয়া) মোহাম্মদ মাহমুদুল হাসান মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চন্দনাইশ থানাধীন দোহাজারী পৌরসভা দোহাজারী বাজার পেট্রোল পাম্প এর সামনে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশি শুরু করা হয়। এসময় র‌্যাবের চেকপোস্টের দিকে আসা একটি মাইক্রোবাসের গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে মাইক্রোবাসটিকে থামানোর সংকেত দেয়া হয়। মাইক্রোবাস থেকে নেমে দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার সময় দুইজনেক আটক করা হয়। পরে মাইক্রোবাসের সিটের নিচে বিশেষ কায়দায় লুকানো অবস্থায় ১৩ হাজার ৫’শ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তাঁরা আরো জানায়, দীর্ঘদিন যাবৎ কক্সবাজার জেলার সীমান্ত এলাকা হতে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে পরবর্তীতে বিভিন্ন কৌশলে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবনকারীদের নিকট বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ৬৭ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা এবং উদ্ধারকৃত মাইক্রোবাসের আনুমানিক মূল্য ২০ লক্ষ টাকা বলে জানান তিনি।

রিপোর্ট -শ.ম.গফুর,উখিয়া,০১৮২২২৪১৮৪৫