করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা না দিয়েই কোভিড-১৯ ‘পজিটিভ’ হয়েছেন তৌহিদুল ইসলাম নামে এক যুবক। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলায় চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে।

গত মঙ্গলবার জেলায় নতুন যে ২৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে, তাদের মধ্যে তৌহিদ একজন।

এ বিষয়ে তৌহিদুল জানান, করোনাভাইরাসের কোনো উপসর্গ না থাকলেও পরীক্ষার জন্য নমুনা দিতে জেলা সদর হাসপাতাল থেকে দেওয়া নির্ধারিত ফরম পূরণ করেন তিনি। গত ৩ জুন তিনিসহ আরও চারজন ফরম পূরণ করেন। পরদিন দুপুরে তাদের নমুনা দেওয়ার জন্য হাসপাতালের নমুনা সংগ্রহ বুথে যেতে বলা হয়। কিন্তু ওই দিন দুপুরে জরুরি কাজে আটকে যাওয়ায় তিনিসহ ওই চারজনের কেউই নমুনা দিতে যাননি।

ওই যুবক বলেন, ‘আমি নমুনা না দেওয়ার পরও মঙ্গলবার আমাকে ফোন করে জানায়, আমি করোনা পজিটিভ। যদিও আমার সাথের বাকি কারও কাছে কোনো ফোন আসেনি।’

এখন তৌহিদুলের প্রশ্ন, ‘আমি তো নমুনাই দেইনি, তাহলে পজিটিভ হলাম কীভাবে? তবে করোনা পজিটিভ রোগীর তালিকায় নাম আসায় আমি হোম আইসোলেশনে আছি।’

বিষয়টি নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. শওকত হোসেন বলেন, ‘কী কারণে এমনটি হয়েছে সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং যারা নমুনা সংগ্রহের দায়িত্বে ছিলেন তাদের পুনঃরায় এটি ভেরিফাই করার জন্য বলা হয়েছে।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ একরাম উল্লাহ বলেন, ‘যাচাই-বাছাইয়ের আগে এ বিষয়ে কিছু বলা যাচ্ছে না।’