সংক্রমণের ১০৪তম দিনে দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত ক্রমেই বেড়ে চলেছে। শুরুর দিকে ‘ক্লাস্টার’ ঘোষণা করা হয়েছিল ঢাকার পাশের জেলা নারায়ণগঞ্জকে।

গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১১৮ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৪ হাজার ৪৯০ জন। নতুন করে একজনসহ জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা এখন ১০০ জন।

এ অবস্থায় জেলায় করোনা চিকিৎসায় সাপোর্ট আছে-এমন দুটি হাসপাতালে আইসিইউ চালু না হলে বা করোনা রোগী ভর্তি না নিলে নিজেই ‘হানা দেবেন’ বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) শামীম ওসমান।

আজ শুক্রবার বিকেল ৪টায় নগরীর রাইফেল ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ হুঁশিয়ারি দেন শামীম ওসমান। এ সময় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ-ডেমরার (ডিএনডি) এলাকার পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়ন না হওয়া ও ২০ লাখ মানুষের দুর্ভোগে উপস্থিত সবার সামনে হাতজোড় করে ক্ষমা চান তিনি।

জেলায় করোনাভাইরাসের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে জানিয়ে শামীম বলেন, ‘দুটি হাসপাতালে আইসিইউ সাপোর্ট আছে। অথচ আইসিইউ নিয়ে আমি কল করতে করতে টায়ার্ড হয়ে গেছি। আমাকে গতকাল বৃহস্পতিবার জানানো হয়েছে, আগামী রোববারের মধ্যে চেষ্টা করা হবে।’

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি বলেন, ‘সিএমএইচটির ডিরেক্টরকে আমি ৫০ বার ফোন দিয়েছি, টেক্সট (ক্ষুদে বার্তা) করেছি। এখনো আইসিইউ অনিশ্চিত। আমি বলছি না আইসিইউ হলে সব রোগী সুস্থ হয়ে যাবে, তবে মিনিমাম (স্বল্প) সেবাটা যদি আক্রান্তরা পায়, তাহলে তাদের স্বজনরা বলতে তো পারবেন যে, আমরা একটুকু সেবা পেয়েছি… তারা স্বস্তি পাবে।’

এ সময় নারায়ণগঞ্জে আইসিইউ সাপোর্টেড প্রো-অ্যাকটিভ এবং আল বারাকা হাসপাতালে শয্যা রয়েছে জানিয়ে শামীম ওসমান বলেন, ‘সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী সকল হাসপাতালে করোনা আক্রান্তদের সেবা দেওয়ার নির্দেশনা রয়েছে। প্রো-অ্যাকটিভ এটাকে বাণিজ্য হিসেবে নিয়েছে। যদি আগামী সপ্তাহের মধ্যে এখানে করোনা রোগীদের সেবা দেওয়া না হয়, আইসিইউ চালু না করা হয়; তাহলে আমি সাংবাদিকদের নিয়ে সেখানে যাব। যা যা করা দরকার করব।’

আজ ডিএনডি এলাকার জলাবদ্ধতা পরিদর্শনের পর সবার কাছে ক্ষমা চেয়ে সাংসদ শামীম ওসমান বলেন, ‘নতুন দুটি পাম্প চালু হলে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ডিএনডির পানি নিষ্কাশন হয়ে যাবে।’

এমপি আরও বলেন, ‘ডিএনডি জলাবদ্ধাতার ছবি আমি পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছি। ডিএনডির এই কাজটি পরিপূর্ণ করতে হলে আরও বেশ কিছু টাকার প্রয়োজন। যদিও এই করোনাকে মোকাবিলা করতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ্যে জিডিপির ৩.৬ ভাগ অনুদান দিয়ে দিয়েছেন। আগামী ২৫ জুন মিটিং আছে। সেখানে ডিএনডির প্রকল্প শেষ করার জন্য যে অর্থ, প্রধানমন্ত্রী সুস্থ থাকলে পেয়ে যাব। কাজটি তাহলে সম্পন্ন হয়ে যাবে।’

শামীম ওসমানের সঙ্গে এ সময় উপস্থিত ছিলেন ডিএনপি প্রকল্প পরিচালক লে: কর্নেল মাসফিকুল আলম ভূইয়া।

নারায়ণগঞ্জে করোনা পরিস্থিতি :

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের দেওয়া তথ্যমতে, জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৩৬৭ জনের। মোট নমুনা সংগ্রহ করা হয় ২১ হাজার ৪৯৮ জনের। আর নতুন করে ১১৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন। জেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ৪৯০ জন। আর মোট সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৯৮৬ জন।

এলাকাভিত্তিক মোট আক্রান্ত হয়েছেন আড়াইহাজার উপজেলায় ৪৩৮ জন, বন্দর উপজেলায় ১৪১ জন, সিটি করপোরেশন (এনসিসি) এলাকায় ১৫৫২ জন, রূপগঞ্জ উপজেলায় ৮৪৯ জন, সদর উপজেলায় (ফতুল্লা, সিদ্ধিরগঞ্জ ও সদর থানা) ১১৩০ জন ও সোনারগাঁও উপজেলায় ৩৮০ জন। এলাকা ভিত্তিক মৃতের সংখ্যা আড়াইহাজারে ৩, বন্দরে ৩, সিটি করপোরেশন এলাকায় ৫৮, রূপগঞ্জে ২, সদর উপজেলায় ২১ এবং সোনারগাঁও উপজেলায় ১৩ জন। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. ইমতিয়াজ আহম্মেদ।